সেই ‘ইয়াবা এজাজ’ নৌকায় চড়ে চেয়ারম্যান হতে চান : আওয়ামী লীগের তৃণমূলে অসন্তোষ

ইয়াসিন জয়নাল শামস, চট্টগ্রাম ;

চট্টগ্রাম শহরে অন্তত ১০ কোটি টাকা মূল্যের স্মরণকালের প্রথম বৃহত্তম ইয়াবা চালান জব্দের ঘটনায় আলোচিত ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)’র অভিযুক্ত  এম, এজাজ চৌধুরী ইউপি চেয়ারম্যান হতে চান।‌ গতবারের ‘বিদ্রোহী প্রার্থী’ এজাজ এবার নৌকা প্রতীক নিয়েই চেয়ারম্যান হতে চান ।

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কুসুমপুরা ইউনিয়ন থেকে  প্রার্থী হতে তোড়জোড় শুরু করেছেন তিনি । একইসংসদীয় আসনের এমপি বহুল সমালোচিত হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এপিএস হিসেবে পরিচিত এম, এজাজ চৌধুরীকে নিয়েও বিতর্ক থেমে নেই। যদিও  এরই মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হয়েছেন এজাজ ।

হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর এপিএস হিসেবেই আলোচিত ইয়াবা চালান সম্পৃক্ততার ব্যাপারে এজাজের নামটি সংবাদ মাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে উঠে আসে। ‌ ‘এমপির এপিএস’ ও ‘ ইয়াবা এজাজ’ হিসেবেও পরিচিতি চুকানোর চেষ্টা করেছেন। ‌বিবৃতি দিয়েই ‘এপিএস’ হিসেবে তাকে অস্বীকার করেছিলেন এমপি শামসুল ।‌ অবশ্য এমপির দপ্তর ও বহরে প্রায়শই দেখা যায় তাকে।

এমপির ছায়াতেই গত ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে কথিত ‘বিদ্রোহী’ হিসেবে নির্বাচনে করেন এজাজ। তাকেই আসন্ন পটিয়ার ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থিতার প্রশ্নে  উপজেলা ও জেলা আওয়ামীলীগের তালিকায় প্রাধান্য দেওয়ায় ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

এরই মধ্যে এজাজের  বিরুদ্ধে দূর্নীতি, ইয়াবা ও অবৈধ সম্পদ অর্জন ছাড়াও স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীদের কোনঠাসা করে রাখার অভিযোগ রয়েছে। এজাজের অনৈতিক কর্মকান্ডের কারণে স্থানীয় আওয়ামী লীগও বিব্রত বলে ক্ষমতাসীন এই দলটির কর্মী-সমর্থকরা জানিয়েছেন ।

আগামী ২৩ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে নির্বাচন হবে।

দলের একাধিক সূত্র জানায়, পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়ন পরিষদটির দীর্ঘ ঐতিহ্য রয়েছে। পঞ্চাশের দশকের আওয়ামী লীগ নেতা ও বঙ্গবন্ধুর বিশ্বস্তজন মরহুম জননেতা সুলতান আহমদ কুসুমপুরীর নামের সাথে এই ইউনিয়নটির নাম সংযুক্ত ।‌ ওই এলাকায় দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দিয়ে যান কুসুমপুরী। এমন একটি এলাকায় ইয়াবা সহ নানা অপকর্মে জড়িত অভিযুক্ত এজাজের প্রার্থিতার প্রচেষ্টা নিয়ে সাধারণ্যের মাঝে তীব্র অসন্তোষ রয়েছে। ‌

কুসুমপুরা ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের সম্ভাব্য ২২জন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের জীবনবৃত্তান্ত দলীয় ফোরামে জমা দিয়েছেন।  পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ যাচাই বাছাই করে কেন্দ্রের মনোনয়ন বোর্ডের কাছে ৭জনের নাম প্রেরণ করার চূড়ান্ত হয়েছে। এই ৭ সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে রয়েছেন:  কুসুমপুরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য ও চেয়ারম্যান ইব্রাহিম বাচ্চু, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এম, হোছাইন রানা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এম এজাজ, উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ এমরান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবু সুফিয়ান টিপু, সদস্য জাকারিয়া ডালিম, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন।

‘যাচাই বাছাই শেষে’ যে ৭ জনের নাম কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য চূড়ান্ত করা হয়েছে এর মধ্যে এজাজের বিরুদ্ধে আছে অভিযোগের পাহাড়। গত ইউপি নির্বাচনে ‘বিদ্রোহী প্রার্থী’ হিসেবে তার প্রতীক ছিল ‘আনারস’।

স্থানীয় নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র জানায়, এজাজের দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদের তথ্য অনুসন্ধানে মাঠে নেমেছে দুদক। এমন কি তার পিতার  গোডাউন থেকে ইয়াবার বৃহৎ চালান জব্দের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় থানায় একটি মামলাও হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ২০১৯ সালে দুদকে জমা হওয়া অভিযোগ এখনো নিস্পত্তি হয়নি। অভিযোগ নং- ১৮১/১৯ইং।

উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহ সভাপতি ও কুসুমপুরা ইউপি নির্বাচনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউসুফ খান বলেন, এলাকার মানুষ এবং দলীয় নেতা কর্মীদের দাবি দলের ত্যাগী কোন ব্যক্তিকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হউক। এজাজের নামটি প্রথম নাম্বারে পাঠানোর খবর পেয়ে দলীয় নেতা কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ.ক.ম শামসুজ্জামান চৌধুরী সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আমরা দলীয় দৃষ্টিকোন এবং বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে  প্রার্থীদের নামের তালিকা পাঠিয়েছি। যদিও কোন বির্তকিত ব্যক্তি নাম এসে যায় বিষয়টি কেন্দ্র বিবেচনা করবে এবং দলীয় প্রার্থী করার ক্ষেক্রে কয়েকটি দফা যাচাই বাচাই করে মনোনয়ন দেয়া হবে। তবে কোন বির্তকিত ব্যক্তি দলীয় মনোনয়ন পাক সেটা উপজেলা আওয়ামী লীগ চাই না।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে এজাজ চৌধুরীর সাথে কয়েকবার যোগাযোগ করা হলেও তার মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি ।

উল্লেখ্য, গত ১০ নভেম্বর তফসিল ঘোষনা করা হয়। আগামী ২৫ নভেম্বর মনোনয়ন দাখিল, ২৯ নভেম্বর বাছাই, ৩০ নভেম্বর আপিল, ৬ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ। ৭ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ এবং ২৩ ডিসেম্বর নির্বাচন হবে ।

16:50, 30, 14.11.2021


newsbankbangla.com
নিউজ ব্যাংক বাংলা ডট কম
উপদেষ্টা সম্পাদক : রিয়াজ হায়দার চৌধুরী

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *